1. 1)–g) অ্যাভোগাড্রো প্রকল্প 2)–c)34gm 3)–d) প্রতিবিম্বের অবস্থান ফোকাসে 4)–j) তড়িৎ পরিবাহীর উপর চুম্বকের ক্রিয়া 5)–h)18gm 6)–i) প্রতিবিম্ব বক্রতা কেন্দ্রে অবস্থিত হবে 7)–b) কৌণিক চ্যুতি শূন্য 8)–a) কেবলমাত্র তরলের ক্ষেত্রে প্রযোজ্য 9)–e)J-¹.k.s 10)–f)6.643×10-²⁴ 11)–q) ভর সংখ্যার হ্রাস 12)–p) বৃদ্ধRead more

    1)–g) অ্যাভোগাড্রো প্রকল্প
    2)–c)34gm
    3)–d) প্রতিবিম্বের অবস্থান ফোকাসে
    4)–j) তড়িৎ পরিবাহীর উপর চুম্বকের ক্রিয়া
    5)–h)18gm
    6)–i) প্রতিবিম্ব বক্রতা কেন্দ্রে অবস্থিত হবে
    7)–b) কৌণিক চ্যুতি শূন্য
    8)–a) কেবলমাত্র তরলের ক্ষেত্রে প্রযোজ্য
    9)–e)J-¹.k.s
    10)–f)6.643×10-²⁴
    11)–q) ভর সংখ্যার হ্রাস
    12)–p) বৃদ্ধি পায়
    13)–r) বক্সাইট
    14)–k) হ্রাস পায়
    15)–l) সমযোজী যৌগ
    16)–n) সালফিউরিক অ্যাসিড
    17)–o) নিউক্লিয় সংযোজন
    18)–t) পোলার দ্রাবক
    19)–s) অ্যামোনিয়া
    20)–m) অপরিবর্তিত নিউক্লিয়াস
    21)–w) লৌহ চূর্ণ
    22)–u)Mg
    23)–y)F
    24)–v) প্রতিস্থাপন বিক্রিয়া
    25)–x) গ্রীন হাউজ গ্যাস

    See less
    • 3
  2. ভারতের মতো বিশাল দেশের বিস্তীর্ণ অঞ্চলের যোগাযোগ ও পরিবহনের মাধ্যম হিসেবে সড়কপথের গুরুত্ব অপরিসীম৷ ১)গ্রামীণ উন্নতি:- ভারতের প্রায় ৬৮% মানুষ গ্রামাঞ্চলে বসবাস করে। কিন্তু বহু গ্রামাঞ্চলে এখনও রেলপথ বা অন্যান্য পরিবহন ব্যবস্থা গড়ে ওঠেনি।এইসব গ্রামাঞ্চলের সঙ্গে শহর,বাজার, শিক্ষাকেন্দ্র, শিল্পকেন্দ্Read more

    ভারতের মতো বিশাল দেশের বিস্তীর্ণ অঞ্চলের যোগাযোগ ও পরিবহনের মাধ্যম হিসেবে সড়কপথের গুরুত্ব অপরিসীম৷
    ১)গ্রামীণ উন্নতি:- ভারতের প্রায় ৬৮% মানুষ গ্রামাঞ্চলে বসবাস করে। কিন্তু বহু গ্রামাঞ্চলে এখনও রেলপথ বা অন্যান্য পরিবহন ব্যবস্থা গড়ে ওঠেনি।এইসব গ্রামাঞ্চলের সঙ্গে শহর,বাজার, শিক্ষাকেন্দ্র, শিল্পকেন্দ্রের একমাত্র যোগাযোগের মাধ্যম হল সড়কপথ।
    ২)পণ্য পরিবহণ:- কৃষিজ,বনজ, প্রানীজ, খনিজ প্রভৃতি সকল প্রকার পণ্য পরিবহণে‌ সড়কপথের গুরুত্ব অপরিসীম৷
    ৩)শিল্পের বিকাশ:-ক্ষুদ্র থেকে বৃহৎ সকল প্রকার শিল্পের প্রয়োজনীয় কাঁচামাল, যন্ত্রপাতি সংগ্রহ ও শিল্পজাত দ্রব্য বাজারে পাঠানোর ক্ষেত্রে সড়কপথের গুরুত্ব অপরিসীম৷
    ৪)আমদানি- রপ্তানি:- আমদানি- রপ্তানি বানিজ্যের ক্ষেত্রে বন্দরগুলোর সঙ্গে পশ্চাদভূমির যোগাযোগ ব্যবস্থার অন্যতম মাধ্যম হল সড়কপথ।
    ৫)অন্যান্য গুরুত্ব:- এ ছাড়া ক)শিক্ষা সংস্কৃতির প্রসার,
    খ)প্রতিরক্ষা ক্ষেত্রে,
    গ)দুর্গম অঞ্চলের উন্নতি,
    ঘ)সামাজিক, রাজনৈতিক, প্রশাসনিক সুস্থিরতা দান প্রভৃতি ক্ষেত্রে সড়কপথের গুরুত্ব অনস্বীকার্য।

    See less
    • 1
  3. মায়োপিয়া(Myopia):-চোখের উপযোজন ক্ষমতা হ্রাস পাওয়ার ফলে দূরের বস্তুর দৃষ্টি ব্যাহত হয় এবং চোখের ত্রুটিজনিত দৃষ্টি ঘটে। একে নিকটবদ্ধ দৃষ্টি বা মায়োপিয়া বলে। মায়োপিয়া রোগের ক্ষেত্রে কোনো ব্যক্তি কাছের বস্তু স্পষ্ট দেখতে পেলেও,দূরের দৃষ্টি ব্যাহত হয়। এই ত্রুটিতে দূরের বস্তু থেকে আগত রশ্মির প্রতRead more

    মায়োপিয়া(Myopia):-চোখের উপযোজন ক্ষমতা হ্রাস পাওয়ার ফলে দূরের বস্তুর দৃষ্টি ব্যাহত হয় এবং চোখের ত্রুটিজনিত দৃষ্টি ঘটে। একে নিকটবদ্ধ দৃষ্টি বা মায়োপিয়া বলে।
    মায়োপিয়া রোগের ক্ষেত্রে কোনো ব্যক্তি কাছের বস্তু স্পষ্ট দেখতে পেলেও,দূরের দৃষ্টি ব্যাহত হয়। এই ত্রুটিতে দূরের বস্তু থেকে আগত রশ্মির প্রতিবিম্ব রেটিনার অনেক সামনে গঠিত হয়, তাই দূরের বস্তু অস্পষ্ট হয়ে যায়।

    মায়োপিয়া সংশোধনে ডাক্তার অবতল লেন্সযুক্ত ( ‘–‘ পাওয়ার) চশমা ব্যবহারের পরামর্শ দেন।

    See less
    • 3
  4. বিংশ শতকে ভারতে সশস্ত্র বিপ্লবী আন্দোলনের ইতিহাসে একটি গুরুত্বপূর্ণ ঘটনা ছিল কোমাগাতামারুর যুদ্ধ। কোমাগাতামারুর যুদ্ধ:- ১)ভারত থেকে বেশ কিছু শিখ সম্প্রদায়ের মানুষ কোমাগাতামারু নামক একটি জাহাজে করে কানাডা যাত্ৰা করলে কানাডা কতৃপক্ষ যাত্রীদের প্রবেশের ছাড়পত্র অস্বীকার করায় তাদের ফিরে যেতে হয়। ২)এরপরRead more

    বিংশ শতকে ভারতে সশস্ত্র বিপ্লবী আন্দোলনের ইতিহাসে একটি গুরুত্বপূর্ণ ঘটনা ছিল কোমাগাতামারুর যুদ্ধ।
    কোমাগাতামারুর যুদ্ধ:-
    ১)ভারত থেকে বেশ কিছু শিখ সম্প্রদায়ের মানুষ কোমাগাতামারু নামক একটি জাহাজে করে কানাডা যাত্ৰা করলে কানাডা কতৃপক্ষ যাত্রীদের প্রবেশের ছাড়পত্র অস্বীকার করায় তাদের ফিরে যেতে হয়।
    ২)এরপর জাহাজটি যাত্রী সহ কলকাতার বজবজে এসে পৌঁছয়। জাহাজের যাত্রীদের এক বিশেষ ট্রেনে অন্যত্র নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করা হলে তারা অসম্মত হয়।
    ৩)এইরূপ পরিস্থিতিতে যাত্রীদের সঙ্গে সরকারি সৈন্যবাহিনীর সংঘর্ষে বেশ কিছু শিখ নিহত হন। কোমিগাতামারুর এই ঘটনাটি ব্রিটিশ শাসন সম্পর্কে ভারতবাসীর মনে তীব্র ক্ষোভের সৃষ্টি করে।

    See less
    • 3
  5. বঙ্গভঙ্গ বিরোধী আন্দোলনকে কেন্দ্র করে বাংলার নারীসমাজের রাজনৈতিক চেতনা এক উচ্চতর স্তরে উন্নীত হলেও এই আন্দোলনের কিছু সীমাবদ্ধতা লক্ষণীয়।যথা- ১)এই আন্দোলনে প্রধানত শহুরে মহিলারা অংশগ্রহনকারী করেন। কিন্তু তাদের প্রচার বা আবেদন গ্রামের সিংহভাগ নারীর কাছে পৌঁছায়নি। ২)গ্রামের নারীরা আন্দোলনের উদ্দেশ্যRead more

    বঙ্গভঙ্গ বিরোধী আন্দোলনকে কেন্দ্র করে বাংলার নারীসমাজের রাজনৈতিক চেতনা এক উচ্চতর স্তরে উন্নীত হলেও এই আন্দোলনের কিছু সীমাবদ্ধতা লক্ষণীয়।যথা-
    ১)এই আন্দোলনে প্রধানত শহুরে মহিলারা অংশগ্রহনকারী করেন। কিন্তু তাদের প্রচার বা আবেদন গ্রামের সিংহভাগ নারীর কাছে পৌঁছায়নি।
    ২)গ্রামের নারীরা আন্দোলনের উদ্দেশ্য বা কর্মসূচি সম্পর্কে অবহিত ছিলেন না।
    ৩)আন্দোলনের কর্মসূচিতে নারীমুক্তির বিষয়ে কিছু বলা হয়নি।

    See less
    • 4
  6. যদি দুটি বৃত্ত পরস্পরকে বহিঃস্পর্শ করে,তবে কেন্দরদুটির দূরত্ব ব্যাসার্ধ দুটির দৈর্ঘ্যের সমষ্টির সমান হয়। প্রশ্নানুসারে, বৃত্ত দুটি পরস্পরকে বহিঃস্পর্শ করেছে এবং তাদের ব্যাসার্ধের দৈর্ঘ্য যথাক্রমে ৫ সেমি ও ৩সেমি। সুতরাং, বৃত্ত দুটির কেন্দ্রদ্বয়ের মধ্যে দূরত্ব =5+3=8cm(d)

    যদি দুটি বৃত্ত পরস্পরকে বহিঃস্পর্শ করে,তবে কেন্দরদুটির দূরত্ব ব্যাসার্ধ দুটির দৈর্ঘ্যের সমষ্টির সমান হয়।
    প্রশ্নানুসারে, বৃত্ত দুটি পরস্পরকে বহিঃস্পর্শ করেছে এবং তাদের ব্যাসার্ধের দৈর্ঘ্য যথাক্রমে ৫ সেমি ও ৩সেমি।
    সুতরাং, বৃত্ত দুটির কেন্দ্রদ্বয়ের মধ্যে দূরত্ব =5+3=8cm(d)

    See less
    • 4
  7. ওজোন ধ্বংসের প্রাকৃতিক কারণ:-বজ্রপাত, অগ্ন্যুৎপাত, আলোক-রাসায়নিক বিক্রিয়া, অতিবেগুনি রশ্মির প্রভাব প্রভৃতি প্রাকৃতিক ঘটনায় ওজোন স্তরের বিনাশ ঘটে। তবে প্রাকৃতিক কারণে প্রতিনিয়ত যে পরিমাণ ওজোন ধ্বংস হয় প্রাকৃতিক উপায়েই সেই অনুপাতেই আবার ওজোন গড়ে ওঠে।

    ওজোন ধ্বংসের প্রাকৃতিক কারণ:-বজ্রপাত, অগ্ন্যুৎপাত, আলোক-রাসায়নিক বিক্রিয়া, অতিবেগুনি রশ্মির প্রভাব প্রভৃতি প্রাকৃতিক ঘটনায় ওজোন স্তরের বিনাশ ঘটে।
    তবে প্রাকৃতিক কারণে প্রতিনিয়ত যে পরিমাণ ওজোন ধ্বংস হয় প্রাকৃতিক উপায়েই সেই অনুপাতেই আবার ওজোন গড়ে ওঠে।

    See less
    • 3
  8. তরল নাইট্রোজেন -১৯৬°Cএর চেয়েও কম উষ্ণতা সৃষ্টি করতে পারে। তাই- ১)চিকিৎসাক্ষেত্রে বিভিন্ন কাজে, যেমন-রক্ত সংরক্ষণ,চোখের কর্ণিয়া প্রতিস্থাপন প্রভৃতি করতে হিমায়করূপে তরল নাইট্রোজেন ব্যবহার করা হয়। ২)কম্পিউটারের কুল্যান্ট হিসেবে ব্যবহার করা হয়।

    তরল নাইট্রোজেন -১৯৬°Cএর চেয়েও কম উষ্ণতা সৃষ্টি করতে পারে। তাই-
    ১)চিকিৎসাক্ষেত্রে বিভিন্ন কাজে, যেমন-রক্ত সংরক্ষণ,চোখের কর্ণিয়া প্রতিস্থাপন প্রভৃতি করতে হিমায়করূপে তরল নাইট্রোজেন ব্যবহার করা হয়।
    ২)কম্পিউটারের কুল্যান্ট হিসেবে ব্যবহার করা হয়।

    See less
    • 3
  9. This answer was edited.

    স্পর্শ পদ্ধতিতে H2SO4 প্রস্তুত করতে অনুঘটক হিসেবে প্লাটিনাম চূর্ণাবৃত অ্যাসবেস্টস অথবা ভ্যানাডিয়াম পেন্টাক্সাইড(V2O5) চূর্ণ ব্যবহৃত হয়।

    স্পর্শ পদ্ধতিতে H2SO4 প্রস্তুত করতে অনুঘটক হিসেবে প্লাটিনাম চূর্ণাবৃত অ্যাসবেস্টস অথবা ভ্যানাডিয়াম পেন্টাক্সাইড(V2O5) চূর্ণ ব্যবহৃত হয়।

    See less
    • 3